যাত্রা পথে চলাচলের নিয়মকানুন..

আমরা প্রতিনিয়তই বাস, ট্রেন, বিমানে চলাচল করি কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত: হলেও সত্যি যে আমরা যাত্রা পথে বিভিন্ন রকম অস্বাভাবিক আচরন করে থাকি যা অন্যের বিরক্তের কারন হয়ে দাড়াঁয়। আসুন আমরা যাত্রাকালে কোন কোন আচরন করব আর কোন কোন আচরন থেকে নিজেকে বিরত রাখব তা জেনে নিই-

  • বাসে উঠে অনেকেই বন্ধু বান্ধবের সাথে সারাক্ষণ পারিবারিক বা বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলতে থাকেন যা কখনোই উচিত নয় কারন সেটা অন্যের বিরক্তের করণ হয়ে দাঁড়ায়।
  • বাসে উঠে অনেকে সিট নিয়ে ঝগড়া বিবাদে জড়িয়ে পড়ি যেটা একদম উচিত নয়। সিটে বসার আগে অবশ্যই আপনার টিকেট থেকে সিট নাম্বার জেনে সঠিক সিটে বসুন।তারপরও যদি একই সিট নাম্বার হয় তবে বাসের সুপারভাইজার বা কাউন্টারে যোগাযোগ করুন।
  • বাসে উঠে আমরা প্রয়শই ঘুমিয়ে পড়ি যেটা আপনার পাশের জনের সমস্যা হয় কারন তখন ঘুমের ঘোরে মাথা, ঘাড় সঠিক জায়গায় থাকেনা, অন্যের গায়ে গিয়ে পড়ে। আবার অনেকে ‍ঘুমে নাক ডাকার অভ্যাস আছে যেটা খুবই বিরক্তকর।
  • দূর যাত্রার বাসে আমরা সিট পিছয়ে নামিয়ে দিয়ে ঘুমাই কিন্তু সিট পিছনে নামাতে গিয়ে অনেক সময় অন্যের গায়ে গিয়ে পড়ে যেখান থেকে দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা থাকে তাই সিট নামানোর সময় অবম্যই পিছনের জনকে দেখে বা অবহিত করে নামানো উচিত।
  • যাত্রাপথে আমরা অনেকসময় কড়া পারফিম বা আতর ব্যবহার করি যেটা পাশেরজন হয়ত সয্য করতে পারেনা বা অনেকের এলার্জির সমস্যা থাকতে পারে। তাই এটা ব্যবহার পরিহার করা উচিত।
  • অনেকে যাত্রাপথে বড় বড় ব্যাগ নিয়ে বাসে চড়ে থাকেন।কখনোই এই ব্যাগ দুই সিটের মাঝখানে রাখা উচিত নয় কারন এতে চলাচলে খুবই অসুবিধা হয়।আপনি বাসে উঠার আগে বক্সে ব্যাগ জমা রাখতে পারেন আর ছোটখাট ব্যাগ হলে নিজের সাথে অথবা পায়ের নিচে রাখতে পারেন।
  • যাত্রা পথে অনেকে সুটকিমাছ নিয়ে আসেন যার গন্ধ অন্যের কাছে খুবই বিরক্তের কারন হতে পারে তাই যদি সুটকিমাছ নিয়ে আসেন তবে ভালেকরে পলিব্যাগে প্যাকিং করে নিয়ে আসবেন যাতে গন্ধ বাইরে না আসে।
  • অনেকে কাঁচা মাছ, মাংশ নিয়ে যাত্রা করে থাকেন যেটার পানি, রক্ত বাসে পড়ে খুবই বিরক্তের কারন হয় তাই যাত্রা পথে এসব পরিহার করুন।
  • বাসে উঠা, নামার সময় তাড়াহুড়ো করা কখনোই উচিত নয়, সন্দুর সুশৃংখলভাবে বাসে উঠানামা করা উচিত।
  • ছোটযাত্রা পথে অবশ্যই প্রতিবন্ধি, নারী সিট বসা থেকে বিরত থাকুন।
  • যাত্রা পথে আমরা জানালা দিয়ে কাশ, কফ, থুতু ফেলে থাকি যেটা কখনোই উচিত নয়, অতীব প্রয়োজনে ফেললেও দেখেশুনে ফেলা উচিত।
  • বাসে জানালা খুলার প্রয়োজন হলে অর্ধেক করে খুলুন যাতে আপনার পিছনেরজন বা সামনেরজন সমানভাবে জানালা খুলেতে পারে।
  • বাসে যদি বমি করার অভ্যাস থাকে তবে সুপারভাইজারের থেকে পলিব্যাগ চেয়ে নিন অথবা নিজেও বাসে চড়ার সময় পলিব্যাগ বহন করতে পারেন।
  • বাসে চড়ার সময় অনেকে মোজা খুলে ভ্রমন করে থাকেন যার বিশ্রী গন্ধ অন্যের বিরক্তের কারন হয় বিশেষকরে এসি বাসে। সেব্যাপারে অবশ্যই খেয়াল রাখা উচিত।
  • বিমানযাত্রায় অবশ্যই বিমান উঠা, নামার সময় সিটবেল্ট বাঁধবেন তাতে নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারবেন।
  • যাত্রাপথে সুপারভাইজারকে আমরা অনেকসময় খারাপ ভাষায় ডাকাডাকি করি যেটা একদমই উচিত নয় করন প্রত্যেক সৎ কর্মকে সবার শ্রদ্ধা করা উচিত।
  • এসি বাসে চড়ার সময় ঘরে বানানো মশলাযুক্ত খাবার খাওয়া উচিত নয় তাতে পুরো বাস গন্ধযুক্ত হয়ে যায়।
  • হালকা খাবার খাবার পর অনেকে তার আবরন বাসে ফেলে দেন যেটা একদমই করা উচিত নয়। আপনি আপনার সামনের সিটের পিছনে হেঙ্গারে রাখতে পারেন অথবা নিদ্দিষ্ট একটা পলিব্যাগে রেখে নামার সময় বাহিরে ফেলে দিতে পারেন।
2 Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *